বাচ্চারা যে ভাবে শিখতে পারে

ওয়েব ডেস্ক, প্রকাশিত : সোমবার, ১২ ফেব্রুয়ারি, ২০১৮

ছোটবেলার বয়েসেই যাবতীয় শেখার কাজ সবেথেকে তাড়াতাড়ি আয়ত্ব করতে পারে শিশুরা। তাই এই সময়টুকু শিশুদের ক্ষেত্রে খুবই গুরুত্বপূর্ণ। কিন্তু শেখার ক্ষেত্রে কোন বাধা এলে ভালভাবে তা আয়ত্ব করতে সমস্যা হয় শিশুদের। তাই শেখার ক্ষেত্রে পদ্ধতি যদি সহজ ও সরল হয় তাহলে তাতে আগ্রহী হয়ে ওঠে শিশুটিও। সেরকমই কিছু কৌশলের বিষয়ে জানানো হল আজ।
বাচ্চাকে কল্পনা করতে বলা: শেখার ক্ষেত্রে সহজতম উপায় হচ্ছে কল্পনা। কল্পনা না থাকলে শেখার রাস্তার অনেকটা বন্ধ হয়ে যায়। তাই শিশুদের শেখার ক্ষেত্রে সবথেকে গুরুত্ব পূর্ণ যে বিষয়টি হল কল্পানতে উৎসাহ দেওয়া। এবং সেই কল্পনার বিস্তারিত সমন্ধে শিশুটির কাছ থেকে জানার চেষ্টা করুন। এতে আগ্রহ বাড়ার সাথে সাথে শেখাও সহজ হয়ে যায়।
আপনিও শিখুন সন্তানের কাছ থেকে: কড়া শিক্ষক নয় তার সঙ্গে মিশে গিয়ে তার কাছ থেকে শেখার চেষ্টা করুন। এতে সে যে বিষয়টি শিখল তা জানার চেষ্টা করুন তার কাছ থেকে।এর ফলে তার মনে থাকা ভয়ও দূর হবে এবং স্বাচ্ছন্দের সঙ্গে যে কোন বিষয় শিখতেও তার সুবিধা হবে।
মজার গল্প তৈরি করুন: মজার গল্প তৈরি করার মধ্যে দিয়েও শেখার বিষয়কে আরও সহজ করে তুলতে পারেন। যে বিষয় নিয়ে শেখানো হবে সে বিষয়ের ওপর মজার গল্প তৈরি করলে তাতে শিশুদের মনোযোগ ধরে রাখার বিষয়টিও করা যায়। এছাড়া গল্পের ছলে অনেকটাই শিশুদের মনে করানোও যায়।
পড়াশোনায় রঙের ব্যবহার ভালো: রংয়ের ব্যবহার শিশুরা খুব পছন্দ করে। তাই পড়াশোনার মাঝে রং ব্যবহার করলে শিশুরা খুশি তো হয় বটেই আবার এই রং ব্যবহার করে নানা কিছু আকার মধ্যে দিয়ে তাদেরকে শেখানোও যায় খুব তাড়াতাড়ি। যা সহজেই মনে থাকে মানুষের।
পাঠগুলো ছোট ছোট ভাগ করে পড়া: অনেক সময় বড় কোন বিষয় বস্তু পড়তে হলে হিমসিম খেতে হয় শিশুদের। তাই বড় বিষয় নিয়ে সমস্যা নয় বরং সেই বিষয়কে কয়েকটি ভাগে করে ছোট ছোট ভাবে ভেঙে নিলে খুব সহজেই সেই সমস্যা থেকে বেরিয়ে আসা সম্ভব বলে মনে করা হয়।
বাস্তবিক জিনিস শেখান: আমাদের মস্তিস্ক খুব কম সময়ের জন্য নতুন কিছু মনে রাখতে পারে। তবে সেই কাজ সর্ম্পকিত কিছু যদি আগে করা থাকে তাহলে তা সহজেই মনে চলে আসে। তাই শিশুদের শিক্ষী দেওয়ার ক্ষেত্রে যদি একের সঙ্গে অন্য বিষয়টিকে যুক্ত করা হয় তাহলে সহজেই তা মনে রাখতে পারা যায়। তাই এভাবে কোন শিশুকে শিক্ষা দেয়া হয় তবে তা বেশি ফলপ্রসু হবে বলে মনে করা হয়।

এই খবর শেয়ার করুন
  • Share on Google+